Class 10 Assignment BGS Answer 2021 2nd Week – এসএসসি 2022 ব্যাচের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় এ্যাসাইনমেন্ট সমাধান

Class 10 Assignment BGS Answer 2021 2nd Week - এসএসসি 2022 ব্যাচের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় এ্যাসাইনমেন্ট সমাধান

Class 10 Assignment BGS Answer 2021 2nd Week (এসএসসি 2022 ব্যাচের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় এ্যাসাইনমেন্ট সমাধান) now available here. If you want Class 10 BGS Assignment Answer, you can download it from this post. We have shared the answer of 2nd week BGS assignment here. We have been publishing answers to each assignment since the beginning of the assignment.

Today I have appeared among you with the solution of Bangladesh and global studies Assignment of SSC 2022 batch. At present, the understudies of the new ten need to know about the questions and answer available in this present assignment. So, download your class 10 assignment 2nd week answer 2021 from here along with its answer.

Assignment 2021 Class 10

All educational institutions in the country are closed as per government instructions. Students are not able to go to school and take lessons. For this, the Department of Secondary and Higher Education has published Class 10 BGS or Bangladesh and global studies Assignment system. Students of each class have to submit the assignment answer in writing. Because now there is only one way to evaluate the students. We created the Class 10 Assignment Answer. Read the whole post to get the answer.

You need to know about the assignment before writing the assignment. To write the assignment, first you have to take A4 size paper. You have to write a few paragraphs about a specific topic. You need to take help from your text book to write class 10 BGS assignment 2021.

Class 10 Assignment 2021 2nd Week

Newcomer Class 10 students may not attend regular classes due to severe lockdown. DSHE has released the 2nd week BGS or Bangladesh and global studies assignment syllabus to keep the class 10 students studying properly Bangladesh and global studies of SSC 2022 batch in 2nd week.

Assignment syllabus of each subject has been taken from NCTB board book. Don’t be afraid to see assignments of 3 subjects in a week. Everything will be available from your board book. Therefore, before writing a class 10 assignment answer, read your board book well. And We have prepared for you the answer.

Class 10 Assignment 2021 2nd Week

SSC 2nd Week Assignment 2021 PDF

BGS Assignment 2021 Class 10

The Class 8-9 assignment started in 2020 but the Class 10 assignment started in June 2021. Class 10 is the most important time in education. Newcomer class 10 students could not attend the class from the beginning. Therefore, assignments have been introduced to keep the studies going. Class 10 Assignment BGS or Bangladesh and global studies syllabus is given in 2nd week. We have prepared BGS or Bangladesh and global studies assignment answers. We post 100% correct answers.

BGS Assignment 2021 Class 10

Class 10 Assignment BGS Answer 2021 2nd Week

BGS or Bangladesh and global studies syllabus has been published for the 1st time in 2nd week assignment 10th class. We are ready to answer class 10 BGS or Bangladesh and global studies. Which has been uploaded to this post. You will more and more master your board book for writing assignments. We will answer each of your assignments in this way. You will read the post and share it with your friends. Class 10 Assignment BGS Answer 2021 2nd Week is given below.

এ্যাসাইনমেন্ট:

তোমার পরিবারে বসবাসরত ষাটোর্ধ তোমার দাদা বা নানার কাছে তুমি ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানতে পারলে যে যুদ্ধ শুরু হলে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে গঠিত মুজিবনগর সরকার যুদ্ধ পরিচালনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। মুক্তিযুদ্ধে রাজনৈতিক দলসহ সকলের ভুমিকা মূল্যায়ন করে নির্দেশনা অনুসরণে একটি প্রতিবেদন পণয়ন কর।

ভুমিকা:

স্বাধীনতার ঘোষনা দেওয়ার মাত্র ১৫ দিনের মাথায় সরকার গঠন হবে তা অকল্পনীয় ছিল পাকিস্তানের কাছে। কিন্তু দোর্দণ্ড প্রতাপে ঘুরে দাঁড়ায় স্বাধীন বাংলাদেশ। কারণ গঠিত হয় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ অস্থায়ী সরকার বা মুজিবনগর সরকার। এই অস্থায়ী সরকার গঠনের মধ্য দিয়েই পরিকল্পিত কায়দায় মুক্তিবাহিনীকে সংগঠিত ও সমন্বয় সাধনকরে পকিস্তানি বাহিনীর বিরুদ্ধে সশস্ত্র যুদ্ধ পরিচ্লনা ও স্বাধীন বাংলাদেশের পক্ষে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সমর্থন আদায় করেছিল মুজিবনগর সরকার।

মুজিবনগর সরকার গঠন ও শপথের তারিখ:

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ অস্থায়ি সরকার (মুজিবনগর সরকার বা প্রবাসী বাংলাদেশ সরকার নামেও পরিচিত) মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন ১৯৭১ সালের ১০ এপ্রিল গঠন করা হয়। ১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল এই সরকারের মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা বৈদ্যনাথতলায় (বর্তমানে মুজিবনগর) শপথ গ্রহণ করেন। শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তানের জেলে। তার অনুপস্থিতিতে রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম মন্ত্রিপরিষদের সদস্যদের নাম ঘোষণঅ করেন মেহেরপুর তৎকালীন আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে। সেখানে তিনি বলেন, “সাংবাদিক বন্ধুগণ এবং উপস্থিত জনসাধারণের, আপনাদের সামনে আমার মন্ত্রিসভার প্রধানমন্ত্রীকে আপনাদের সামনে সর্বপ্রথমে উপস্থিত করছি। জনাব তাজউদ্দিন আহমেদ”।

সবাই হাততালি দিয়ে অভিনন্দন জানায়। প্রধানমন্ত্রীতাজউদ্দিন আহমেদ এবং পরাষ্ট্রমন্ত্রী খন্দকার মোশতাক আহমেদ ছাড়াও তিনি অনুষ্ঠানে হাজির করেন ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী এবং এ এইচ এম কামরুজ্জামানকে। সশস্ত্র বাহিনীরপ্রধান হিসেবে কর্নেল আতাউল গনি ওসমানীর নাম ঘোষণা করা হয়। গণপরিষদের স্পিকার ইউসুফ আলী তিনি ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপতি ও মন্ত্রীদের শপথ বাক্য পাঠ করান।

তাজউদ্দিন আহমেদ ও খন্দকার মোশতাক আহমেদ এই ৬ জন সদস্য উপদেষ্টাদের সদস্য।

মুজিবনগর সরকারের কার্য্ক্রম:

মুজিবনগর স্বাধীন বাংলাদেশের সরকারের কাঠামো নিম্নরূপ:

  1. রাষ্ট্রপতি ও মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান
  2. উপ রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম
  3. প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমেদ
  1. অর্থমন্ত্রী এম মনসুর আলী
  2. স্বরাষ্ট্র, ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রী এ এইচ এম কামরুজ্জামান
  3. পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রী খন্দকার মোশতাক আহমেদ

সরকার গঠন করা হয়।  মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনা এবং বাংলাদেশের পক্ষে বিশ্ব জনমত সৃষ্টি করা ছিল এ সরকারে প্রধান উদ্দেশ্য। বাঙালি কর্মকর্তদের নিয়ে সরকার প্রশাসনিক কাজ পরিচালনা করে। এতে মোট ১২ টি মন্ত্রণালয় বা বিভাগ ছিল এগুলো হচ্ছে প্রতিরক্ষা, পররাষ্ট্র, অর্থ শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, মন্ত্রিপরিষদ মন্ত্রিপরিষদ সচিবালয়, সাধারণ প্রশাসন, স্বাস্থ্যও কল্যাণ বিভাগ, ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিভাগ, প্রকৌশল বিভাগ, পরিকল্পনা কমিশন, যুব ও অভ্যর্থনা শিবির নিয়ন্ত্রণ বোর্ড ইত্যাদি। মুজিবনগর সরকার বিশ্বের বিভিন্ন দেশের গুরুত্বগূর্ণ শহর যেমন কলকাতা, দিল্লি, লন্ডন, ওয়াশিংটন, নিউেইর্ক, স্টকহোম ইত্যাদি স্থানে বাংলাদেশ সরকারের মিশন স্থাপন করে। সরকার বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরীকে বিশেষ দূত হিসেবে নিয়োগ দান করেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে নেতৃত্ব এবং জনসমর্থন আদায়ের জন্য কাজ করেন। ১০ এপ্রিল সরকার চারটি সামরিক জনে বাংলাদেশকে ভাগ করেন এবং চারজন সেক্টর কমান্ডার নিযুক্ত করেন। ১১ ই এপ্রিল তা পুনঃনির্ধারিত করে ১১ টি সেক্টরে বিভক্ত করেন। এছাড়াও বেশকিছু সাব-সেক্টর এবং তিনটি ব্রিগেড ফোর্স গঠিত হয়। এসব বাহিনীতে পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে কর্মরত বাঙালি সেনা, কর্মকর্তা, সেনাসদস্য, পুলিশ, ইপি. আর, নৌ ও বিমান বাহিনীর সদস্যগণ যোগদান করেন। প্রতিটি সেক্টরে গেরিলা ও সাধারাণ যোদ্ধা ছিল তাদেরকে মুক্তিযোদ্ধা বা মুক্তিফৌজ নামে ডাক হত। আর এই মুজিবনগর সরকার সুষ্ঠ ভাবে মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনার ফলে ১৬ ডিসেম্বরে বাংলাদেশ স্বধীন হয়। এটাই ছিল মুজিবনগর সরকারের কার্যক্রম।

মুক্তিযুদ্ধে সাধারণ জনগণ ও পেশাজীবীদের ভূমিকা:

১৯৭১ সালের ২৫ শে মার্চ নিরস্ত্র বাঙালির উপরে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী আক্রমণ চালালে বাঙালি ছাত্র-জনতা পুলিশ এয়ার ফোর্স সাহসিকতার সাথে তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ায়। বিনা প্রতিরোধে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীকে বাঙালিরা ছাড়া দেয়নি। দেশের জন্য যারা জীবন দিয়েছে তারা বাংলাদেশের সূর্য সন্তান তাদেরকে কখনোই এ জাতি ভুলবে না। মুক্তিযুদ্ধে সাধারণ জনগণ পেশাজীবীদের ভূমিকা ছিল অনেক বেশি। মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ পাশাপাশি মুক্তিযোদ্ধাদের খাবার ও লুকিয়ে রাখতে সাহায্য করেছে। তারা দেশের জন্য জীবন দিতে কখনো পিছুপা হয়নি এরাই জাতির সত্যিকারের দেশ প্রেমিক সন্তান। মুক্তিযুদ্ধে বেঙ্গল নেজিমেন্টের সৈনিক, ইপিআর, পুলিশ, আনসার, কৃষক, শ্রমিক ছাত্র-ছাত্রীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করে। সবাই এই যুদ্ধে অংশগ্রহণ করার ফলে, এই যুদ্ধকে বলা হয় “গণযুদ্ধ” বা “জনযুদ্ধ”।

স্বাধীনতা অর্জনে তৎকালীন করকারের রাজনৈতিক ব্যক্তিদের অবদান:

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী প্রধান রাজনৈতিক দল হল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। রাজনৈতিক দলের নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের গতি প্রকৃতি নির্ধারণ করা হয়। বাংলাদেশের ‍মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনায় আওয়ামী লীগ ছাড়াও প্রগতিশীল রাজনৈতিক দলগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে ন্যাপ(ভাসানী), ন্যাপ(মোজাফ্ফর), কমিউনিস্ট পার্টি, জাতীয় কংগ্রেস ইত্যাদি। এছাড়াও রাশিয়ার রাজনৈতিক দলের অবদান, চীনে পন্থী রাজনৈতিক দলের অবদান, ডানপন্থী রাজনৈতিক দলের অবদান অস্বীকার করা যায় না।

মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা:

মুক্তিযোদ্ধা মানে লাল-সবুজের পতাকার সাথে সম্পর্কিত। এদের রক্তের বিনিময়ে এ দেশ স্বাধীন হয়েছে। এদের অবদান কখনোই এ জাতী ভুলবেনা । তাদের অসীম সাহসিকতায় পাকিস্তানির আধুনিক অস্ত্রে সজ্জিত বাহিনীকে পরাজিত করতে পেরেছি। দীর্ঘ নয় মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মধ্য দিয়ে এদেশ স্বাধীন হয়। হারাতে হয়েছে ৩০ লক্ষ বাঙালিকে এবং ২ লক্ষ মা-বোনের ইজ্জতকে। এ জাতি কখনোই এই অবদানকে ভুলতে পারে না। এটা কখনোই ভুলবার নয়।

Read More:

Class 9 Assignment Answer 2021 8th Week 

Class 10 Assignment 2nd Week 2021 

Class 8 English Assignment 2021 Answer 8th Week

Class 7 English Assignment Answer 2021 8th Week 

Conclusion: 

So far we have answered all the assignments in class 9. Which is very important for class 9 students. Later again we will share all types of assignment answers.

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*